BREAKING NEWS :: যোগীরাজ্যে আবার অঘটন – করোনার বদলে জলাতঙ্কের টিকা !

আনন্দ মুখোপাধ্যায় :: সংবাদপ্রবাহ ::১৪ই,এপ্রিল :: লখনৌ ::

করোনার বদলে জলাতঙ্কের

টিকা ?

করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) টিকার বদলে দেয়া হয়েছে জলাতঙ্কের ভ্যাকসিন। এতে অসুস্থ হয়ে চিকিৎসাধীন সত্তরোর্ধ্ব এক বৃদ্ধা। এমন অভিযোগ উঠেছে ভারতের উত্তরপ্রদেশে। একইভাবে গাফিলতির অভিযোগ অপর দুই বৃদ্ধা আনারকলি এবং সত্যবতীর পরিবারের।উত্তরপ্রদেশের শামলি জেলার এ বিষয়টি সামনে আসতেই হইচই পড়ে যায়। ওই স্বাস্থ্যকেন্দ্রের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগে সরব স্থানীয়রা।

এ প্রসঙ্গে শামলি জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য কর্মকর্তা (সিএমও) সঞ্জয় আগরওয়াল জানিয়েছেন, ওই স্বাস্থ্যকেন্দ্রের দুই তলায় টিকাকরণ কর্মসূচি চলছিল। তার মধ্যে একটিতে কোভিডের টিকা দেয়া হচ্ছিল। অন্যটিতে চলছিল জলাতঙ্কের টিকা দেয়ার কাজ। কী ভাবে এই ভুল হলো তা তদন্ত করা হচ্ছে। এই ঘটনায় কারো গাফিলতি ছিল কি না তা-ও খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সিএমও। জেলা প্রশাসক জসজিৎ কউর বলেন, ‘গোটা ঘটনার তদন্ত করা হবে। যদি কোনো কর্মকর্তার গাফিলতি প্রমাণিত হয়, তাহলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

এদিকে, যত দিন এগোচ্ছে, ততই করোনা যেন গ্রাস করছে ভারতকে। করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ের আঘাতে প্রতিদিন বাড়ছে সংক্রমণের গ্রাফ। গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ৪৫ হাজার ৩৮৪ জন। মৃত্যু হয়েছে ৭৯৪ জনের। যা রেকর্ড তৈরি করেছে দেশটিতে।

করোনার দ্বিতীয় পর্যায়ে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা এক লাখের গন্ডি পেরিয়েছে। কিন্তু প্রথম পর্যায়ে এত আক্রান্ত হয়নি যত আক্রান্ত হচ্ছে দ্বিতীয় পর্যায়ের করোনা হানায়। সব মিলিয়ে এখন পর্যন্ত দেশে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ১ কোটি ৩২ লাখ ৫ হাজার ৯২৬ জন। সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১ কোটি ১৯ লাখ ৯০ হাজার ৮৫৯ জন। আক্রান্তের তুলনায় সুস্থতার হার অনেকটাই কম।

এখন অ্যাক্টিভ কেসের সংখ্যা ১০ লাখ ৪৬ হাজার ৬৩১। এখন পর্যন্ত মৃত্যু হয়েছে ১ লাখ ৬৮ হাজার ৪৩৬ জনের। সবচেয়ে চিন্তার পরিস্থিতি মহারাষ্ট্রে। গত ১৫ দিনে মহারাষ্ট্রে সংক্রমণ রীতিমতো লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। এদিকে, শনিবারই রাষ্ট্রীয় সমাজসেবক সংঘের (আরএসএস) প্রধান মোহন ভাগবতের করোনা আক্রান্তের খবর জানা গিয়েছে।

কলকাতাও চিন্তা বৃদ্ধি করেছে। নির্বাচনী রাজ্যে বৃদ্ধি পেয়েছে কোভিড। লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। গত ২৪ ঘণ্টায় মহানগরে এক লাফে কোভিড আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ৯৮৭ হয়েছে। সংক্রমিত ও মৃতের সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ হওয়ায় উদ্বেগ বেড়েছে রাজ্যে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

2 × 5 =