তথাগত রায়ের দাবি বঙ্গ-বিজেপি অর্থ ও নারীচক্রে জড়িত, তদন্ত চেয়ে আইনের দ্বারস্থ বামনেতা

সম্প্রতি একটি ফেসবুক পোস্টে বঙ্গ-বিজেপিকে অর্থ ও নারী চক্র থেকে বের করে আনার কথা বলেছেন খোদ প্রাক্তন বিজেপি রাজ্য সভাপতি এবং মেঘালয় ও ত্রিপুরার প্রাক্তন রাজ্যপাল তথাগত রায়৷ তথাগত রায় বঙ্গ-বিজেপির অন্যতম বরিষ্ঠ নেতা আর তিনি এখনও বিজেপিতেই রয়েছেন৷ তাই তার ফুলটস লুফে নিতে সময় নেয়নি বামেরা৷ তথাগতর বক্তব্য সামনে আসার পরই মঙ্গলবার বাম যুবনেতা সায়ন বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর বক্তব্যকে সামনে রেখেই কলকাতার একটি থানায় লিখিত অভিযোগ জানিয়ে তথাগত বাবুর কথার পরিক্ষেতে বিজেপির এই অর্থ ও নারীচক্রের বিরুদ্ধে তদন্ত দাবি করেছেন৷

চলতি বছর ২রা মের পর থেকেই কোনওরকম রাখঢাক না করেই বঙ্গ-বিজেপি নেতা বিশেষ করে দিলীপ ঘোষ, কৈলাশ বিজয়বর্গীদের সমালোচনা করে আসছেন তথাগত রায়। এর আগে দিলীপ ঘোষকে ফিটার মিস্ত্রি থেকে অশিক্ষিত কিছুই বলতে বাকি রাখেননি তথাগত, এবার সরাসরি তোপ দেগেছেন দলের অনেকের বিরুদ্ধে৷ সম্প্রতি একটি ফেসবুক পোস্টে দলের (পড়ুন বঙ্গ-বিজেপির) অনেক গোপন কথা ফাঁস করে দেওয়ার হুমকি দেন তথাগত।

তিনি একটি ফেসবুক পোস্টে লেখেন, ‘গতকাল থেকে ফোনে ফোনে জর্জরিত হয়ে গেলাম। সকলকে আশ্বস্ত করছি এই বলে, যে আমি স্বেচ্ছায় দল ছাড়ছি না। আমি আপাতত এখন সাধারণ সদস্য। এই অবস্থাতেই যাত্রার বিবেকের ভূমিকা পালন করে যাব। দল ছাড়তে পারলে সব গুপ্তকথাই ফাঁস করতে পারতাম কিন্তু এখনই তা হচ্ছে না।’

তথাগতর আরও ফেসবুক পোস্ট! এরপর আরও একটি পোস্টে মঙ্গলবার তথাগত লেখেন, ‘৩ থেকে ৭৭”(এখন ৭০) গোছের আবোলতাবোল বুলিতে পার্টি পিছোবে, এগোবে না। অর্থ এবং নারীর চক্র থেকে দলকে টেনে বার করা অত্যাবশ্যক। দলের নবনিযুক্ত সভাপতি ও বিরোধী দলনেতা – এঁরা দুজনে নেতৃত্ব দিন। পুরোনো চক্রে ফেঁসে থাকলে এখন যে পুরভোটের প্রার্থী পাওয়া যাচ্ছে না এরকম অবস্থাই চলবে।মূলত এই পোস্টটিকে সামনে রেখেই থানায় বিজেপির বিরুদ্ধে তদন্ত চেয়ে অভিযোগ দায়ের করেছেন বামনেতা ও পেশায় উকিল সায়ন বন্দ্যোপাধ্যায়।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *