সুদেষ্ণা মন্ডল :: সংবাদ প্রবাহ :: গোসাবা :: সুন্দরবনের খাঁড়িতে কাঁকড়া ধরতে গিয়ে এবার দক্ষিণরায়ের হামলায় জখম হল এক মহিলা কাঁকড়া শিকারী । আহতের নাম কাজল মল্লিক ।পাথরপ্রতিমার সত্য দাসপুর গ্রামের বাসিন্দা। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ছজনের একটি দল যন্ত্রচালিত ভুটভুটি নিয়ে কাঁকড়া ধরার জন্য সুন্দরবনের গভীর জঙ্গলের নদীর খাঁড়িতে গিয়েছিল। ওই দলে কাজল ও তার স্বামী সুবল সহ আরও ৪ জন প্রতিবেশী ছিল । কলস দ্বীপের জঙ্গলে বাঘের খালে নৌকা নোঙর করে তারা দাঁড়িয়ে ছিল।

রাতের রান্না সেরে সবাই মিলে খাওয়ার সময় আচমকা অন্ধকারের মধ্যে জঙ্গল থেকে বেরিয়ে লাফ দিয়ে নৌকায় উঠে পড়ে একটি বাঘ। কিছু বুঝে ওঠার আগে কাজলের দু হাতে, মাথায় ও গালে থাবা বসিয়ে দেয় । সাথে সাথে কাজলের স্বামী সুবল এবং তার সঙ্গীরা লাঠি ও কাঁকড়া ধরার গাঁতি নিয়ে পাল্টা বাঘের উপর হামলা করে । এতেই ভয় পেয়ে মুহুর্তের মধ্যে নৌকা থেকে লাফ দিয়ে জঙ্গলে ঢুকে গা ঢাকা দেয় সে । তবে এই ঘটনায় কাজল গুরুতর আহত হয় । গভীর রাতেই রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে নিয়ে হাসপাতালে উদ্দেশ্যে ফিরে আসে সবাই ।

আপাতত পাথরপ্রতিমা ব্লক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে কাজল। সুন্দরবনের জঙ্গলে মাছ ও কাঁকড়া ধরতে গিয়ে বাঘের আক্রমণে পাঁচদিন আগে পাথরপ্রতিমা পশ্চিম দ্বারিকাপুর গ্রামের বাসিন্দা শংকর ভক্তার (২১) মৃত্যু হয়। শনিবার সন্ধ্যা নাগাদ ওই গ্রামের বাসিন্দা পঞ্চানন ভক্তাও জখম হয়েছে । পঞ্চানন আপাতত কাকদ্বীপ মহাকুমা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আবারও বাঘের হামলায় আরও এক মহিলার জখম হওয়ার ঘটনায় উদ্বিগ্ন বনবিভাগ ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here