BREAKING NEWS :: বিহারের সাংবাদিক হত্যার তিন অপরাধী ধরা পড়ল চন্দননগরের ঝানু গোয়েন্দাদের হাতে – গোস্বামী ঘাট থেকে

নিজস্ব সংবাদদাতা :: সংবাদ প্রবাহ :: চন্দননগর :: গত ২০ মে বিহারের বেগুসরাইয়ে তরুন সাংবাদিক খুনের ঘটনায় চন্দননগর থেকে গ্রেফতার হল তিনজন। চন্দননগরের গোস্বামীঘাট এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয় তাদেরকে । ধৃতদের নাম রোশন কুমার, প্রিয়াংশু কুমার ও সৌরভ কুমার। ধৃতরা সকলেই বিহারের বাসিন্দা।গত ২০ মে বিহারের বেগুসরাইতে খুন হন বছর ২৬এর তরুন সাংবাদিক সুভাষ কুমার মাহাতো। অভিযোগ ওঠে বালি মাফিয়াদের বিরুদ্ধে বারংবার খবর প্রকাশিত করার অপরাধেই খুন হন সুভাষ। সেই ঘটনার আঁচ পড়ে দেশের বিভিন্ন এলাকার সাংবাদিক মহলে। বিভিন্ন জায়গায় এই ঘটনায় সাংবাদিকরা প্রতিবাদে সরব হন।

সেই ঘটনার পর থেকেই পলাতক ছিল অভিযুক্তরা। বৃহস্পতিবার রাতে চন্দননগর থানার গোস্বামী ঘাট এলাকায় তিনজন সন্দেহজনকভাবে ঘোরাঘুরি করছিল। স্থানীয়দের কাছ থেকে সেই খবর পেয়ে সেখানে হানা দেয় চন্দননগর থানার পুলিশ। পুলিশকে বোকা বানাতে তিনজনই নিজেরকে মধ্যপ্রদেশের বাসিন্দা বলে পরিচয় দেয়। পাশাপাশি নিজেদের নামও অন্য বলে। এরপর পুলিশের সন্দেহ হওয়ায় পুলিশ তাদেরকে আটক করে থানায় নিয়ে এসে জিজ্ঞাসাবাদ করতেই বিহারের বেগুসরাইয়ে সাংবাদিক সুভাষ কুমার মাহাতোকে খুনের কথা স্বীকার করে তারা। এরপরই তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।

পুলিশ সূত্রে খবর ধৃতরা বিগত চল্লিশ দিন ধরে একাধিক রাজ্যের স্টেশন চত্ত্বরে ঘোরাঘুরি করেছে। দিন দুয়েক আগে তাঁরা এরাজ্যের চন্দননগরে আসে।

শুক্রবার ডিসি চন্দননগর বিদিত রাজ বুন্দেশ বলেন ধৃতদের বিরুদ্ধে পুলিশকে ভূল তথ্য দেওয়ার অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। পাশাপাশি বিহার পুলিশের সাথেও যোগাযোগ করা হয়েছে। সেখান থেকে পুলিশ এলে চন্দননগর আদালতের অনুমতি নিয়ে ধৃতদের বেগুসরাইতে নিয়ে যাওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

18 − seventeen =